আন্তর্জাতিক

আরবীতে কথা বলায় ফ্রান্সে মুসলিম ভাই-বোনের ওপর হামলা

আরবীতে কথা বলায় ফ্রান্সে এক মুসলিম ভাই-বোনের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। দেশটির রাজধানী প্যারিসের বাইরের একটি ছোট শহরে মুসলিম ওই ভাই-বোনের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।
হামলার শিকার ওই মুসলিম ভাই-বোন জর্ডানের নাগরিক। কেবল আরবীতে কথা বলার কারণেই তাদের ওপর কট্টর বর্ণবাদী ও উগ্রপন্থী ফরাসিরা হামলা করে বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে দ্য ইসলামিক ইনফরমেশন। হামলার শিকার ভাই
ও বোন জানিয়েছেন, আরবীতে কথা বলার কারণে কট্ট্র বর্ণবাদী ও উগ্রপন্থী দুই ফরাসি নারী ও পুরুষ তাদের ওপর হামলা ও

নির্যাতন করে। হামলার সময় হামলাকারীরা মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শনের ঘটনায় অভিযুক্ত ফরাসি শিক্ষককে হত্যার করায় আক্রমণাত্মক বিভিন্ন কথা বলে। নির্যাতনের শিকার
জর্ডানিয়ান ওই যুবকের নাম মোহাম্মদ আবু ঈদ। টেলিফোনে স্থানীয় গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি অভিযোগ করেন,‘কট্টর উগ্রবাদী ফরাসি ওই ব্যক্তি ও তার স্ত্রী চিৎকার করে ও রাগান্বিতভাবে আমাদের দিকে তেড়ে আসেন এবং বলেন-
এটা ফ্রান্স। এটা তোমার দেশ নয়।’’ এরপর আরবীতে কথা বলতে শুনে পাশের একটি বাস স্টপে তারা আমাদের ওপর হামলা করে।’ এদিকে অভিযুক্ত দুই হামলাকারীকে এখন গ্রেফতার করতে

পারেনি ফরাসি পুলিশ। ফ্রান্সের একটি সরকারি স্কুলের আরবী
বিষয়ের শিক্ষক হিসেবে কাজ করেন মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানের নাগরিক মোহাম্মদ আবু ঈদ। আর তার বোন ফ্রান্সের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করতে পড়াশোনা করছেন। জর্ডানের রাজধানী আম্মানে অবস্থিত ফরাসি দূতাবাস থেকে স্কলারশিপ পেয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করতে তিনি ফ্রান্সে এসেছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close